সাঁওতাল ভাষায় প্রথম মিউজিক ভিডিও প্রকাশ (ভিডিও)


নিজস্ব প্রতিবেদক, রাবি:

সাঁওতাল জাতিগোষ্ঠির নিজস্ব ভাষা ‘সান্তাল’। দেশের খুব কম মানুষই জানেন! চর্চা না থাকায় সাঁওতালদের মধ্যেও হারাতে বসেছে ভাষা। তবে নিজেদের ভাষা ও সাংস্কৃতিকে টিকিয়ে রাখার জন্য সান্তালি রক ব্যান্ড ‘এভেন’ তাদের প্রথম মিউজিক ভিডিও প্রকাশ করেছে। গানটি তাদের নিজস্ব ইউটিউব চ্যানেল (Ebhen official)-এ পাওয়া যাচ্ছে।
মিউজিক ভিডিও’র উদ্বোধন করেন অতিথিরা

শনিবার (১ ফেব্রুয়ারি) রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) কেন্দ্রীয় ক্যাফেটেরিয়ায় আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে ব্যান্ডটি তাদের মিউজিক ভিডিওটি প্রকাশ করে। সাঁওতালি ভাষার শব্দ ‘এভেন’ অর্থ জেগে ওঠা। মিউজিক ভিডিওটির নাম ‘এভেন মে গাতি রে’, যার বাংলা অর্থ দাঁড়ায়- ‘জেগে ওঠো যুবসমাজ।’

ব্যান্ডটির কো-অর্ডিনেটর হিসেবে আছেন ভোকাল ও গিটারিস্ট রুহুল আমিন কিস্কু (র‌্যাক), লিড গিটারিস্ট সন্তোষ সরেন, বেজ গিটারিস্ট রিপন হাঁসদা ও ড্রামসে রয়েছেন মামুন হেম্ব্রম।

সাঁওতালদের নিজস্ব সুর, তাল ও লয়ের আবহে গানটি তৈরি করা হয়েছে। সঙ্গীতটিতে আদিবাসী এই জনগোষ্ঠীর নিজস্ব সংস্কৃতি ও মাতৃভাষার চেতনায় জাগ্রত হওয়ার প্রতি ইঙ্গিত দেওয়া হয়েছে।

মিউজিক ভিডিও প্রকাশ অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাবি চলচ্চিত্র সংসদের সভাপতি গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. সাজ্জাদ বকুল, বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর হাসানুর রহমান, রাজশাহী কলেজের ইংরেজি বিভাগের শিক্ষক স্যামসন হাঁসদা, জেনেসিস স্টুডিও’র পরিচালক মো. সাজিদ প্রমূখ।

অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, বাংলাদেশে নানা জনগোষ্ঠীর মানুষের বসবাস। সাঁওতাল বাংলাদেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম আদিবাসী জনগোষ্ঠী। এসব জনগোষ্ঠীর মানুষদের আলাদা আলাদা সংস্কৃতি রয়েছে। কিন্তু আমরা উদ্বেগের সঙ্গে লক্ষ্য করছি- এসব সংস্কৃতি ক্রমেই হারিয়ে যাচ্ছে। চর্চা শুরু হয়েছে ভিন্ন সংস্কৃতির। ঠিক এই সময়ে ব্যান্ড এভেন যে উদ্যোগ নিয়েছে, তা বিশ্বে সাঁওতালিদের ভাষাকে পরিচিত করার পাশাপাশি এই জনগোষ্ঠীর সাংস্কৃতিক উন্নয়নে ভূমিকা রাখবে।

ব্যান্ডটির কো-অর্ডিনেটর রুহুল আমিন কিস্কু জানান, ২০১৮ সালের ১ মার্চ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ও রাজশাহী কলেজের কয়েকজন শিক্ষার্থী মিলে ব্যান্ডটি চালু করেন তারা। সঙ্গীতের স্পৃহায় যুবসমাজকে সমাজের নানা অসঙ্গতির বিরুদ্ধে জাগ্রত করার লক্ষ্যে তারা কাজ করে যাচ্ছেন।

ভিডিও:

এইচ/এ.